Skip to content Skip to footer

The return of the singer to Islam

চট্টগ্রামের এক গায়কের ফিরে আসা 

আমি রিফাত। ছোট কাল থেকেই মিউজিক এর প্রতি ভালোবাসা বেশি ছিলো। ক্লাস ৬ থেকে মিউজিক  করতাম। আমি গত প্রায় ৬ বছর ধরে মিউজিক নামক হারাম কাজের সাথে সংযুক্ত ছিলাম।

আল্লাহ আমাকে হেফাজত করেছেন এই হারাম কাজগুলো থেকে, আল্লাহ আমাকে হেদায়েত দান করেছেন, আলহামদুলিল্লাহ।

গত ১ মাস আগ থেকে ভেবে আসছিলাম মিউজিক ছেড়ে দিবো এবং শুধু মিউজিকই না হারাম যত কাজ থেকে নিজেকে বিরত রাখবো। তো গত ২ সপ্তাহ আগে আমি ডিসিশন ফাইনাল করি এবং আল্লাহর জন্য সব কিছু ছেড়ে দিয়েছি। আর সেটা আপনাদেরকে জানানোর উদ্দেশ্য হচ্ছে অনেকেই নক করে যে “ভাই গান টান কাভার দাও না যে”। এই কথাগুলো আর যেন না শুনি ভাই। আর আরেকটা উদ্দেশ্য হচ্ছে আমার দ্বারা যেনো আরেকজন মোটিভেট হয়।

ভাই যারা মিউজিক বা হারাম কাজে লিপ্ত থাকেন। আজকে বা কাল মারা গেলে আপনি কবরে কি নিয়ে যাবেন? মিউজিক? বা হারাম কাজের আমল? কী আমল নিয়ে যাবেন?

আল্লাহ তায়ালা বলছেন, “আমি তোমাদেরকে আমার (আল্লাহর) ইবাদতের জন্য দুনিয়ায় পাঠিয়েছি”।

আর আমরা মেতে আছি দুনিয়ার রঙে। আখিরাতের কথা চিন্তা করেন ভাই। আমাদের নবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) ১৪০০ বছর আগে যা যা বলে গেছেন কিয়ামতের আলামত সম্পর্কে সবকিছুর ১০০% মিল পাওয়া যায় সামনে আরো প্রকাশ পাবে।

সূরা হাশরের ৭ নাম্বার আয়াতে আল্লাহ বলেছেন, রসুলল্লাহ (সঃ) তোমাদের কে যা দিয়েছে তা গ্রহণ করে নাও, এবং যা নিষেধ করেছেন তা থেকে বিরত থাকো।

বিদায় হজ্জের ভাষণে রসুলল্লাহ (সঃ) বলেছেন, আমি তোমাদের মাঝে মাত্র দুটো বস্তু ছেড়ে যাচ্ছি তোমরা কম্মিন কালেও পথভ্রষ্ট হবে না, যত পর্যন্ত এই দুটো বস্তু আকরে ধরে থাকবে সেগুলো হলো কিতাব [(সূরা নাহল আয়াত (৮৯)] এবং সুন্নাহ [সূরা হাশরের আয়াত (৭)]

এটাই শেষ জামানা ভাই, কারণ আমাদের রসুলল্লাহ (সঃ) যা যা আলামত বলে গেছেন সবগুলোর মধ্যে অনেকিছু মিলে গেছে ভাই। বাকি গুলো সামনে আসতেসে।

দুনিয়ার লোভ লালসা থেকে ফিরে আসুন ভাই। সময় বেশি নাই। আপনারা মিউজিক বা হারাম কাজে যারা লিপ্ত আছেন সকলকে আল্লাহ হেদায়েত দান করুন।

ভালো থাকবেন। সবাই ভুলত্রুটি হলে ক্ষমা করবেন।

কেউ যদি আমার দ্বারা কষ্ট পেয়ে থাকেন মাফ করে দিবেন ভাই।

আসসালামুআলাইকুম ❤️

– Rayhan Hassan Rifat (সঙ্গীতশিল্পী)

Leave a Reply